কার্টুন - বিপ্রতীক২৪.কম।
এইমাত্র পাওয়া সংবাদ শিরোনাম স্বদেশ

ভারত রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রে যোগ হচ্ছে

পরমাণু শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহার নিয়ে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরের সম্ভাবনা আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন ভারত সফরকালে এ চুক্তি সই হতে পারে। এ ছাড়া বাংলাদেশের আণবিক শক্তি কমিশনের সঙ্গেও ভারতের সংশ্লিষ্ট কমিশনের আলাদা চুক্তি হবে। এ দুই চুক্তির মাধ্যমে মূলত রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রকল্পে যুক্ত হচ্ছে ভারত।


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৭ এপ্রিল চার দিনের সফরে ভারত যাচ্ছেন। দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে তিনি এ সফরে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সফরের সময় ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে উঠবেন। দেশটির রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির আমন্ত্রণে তিনি সেখানে থাকবেন।
জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরকালে দু’দেশের মধ্যে প্রায় দুই ডজন চুক্তি সই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা রবিবার বলেন, ‘আমরা ৪০টি চুক্তি টেবিলে নিয়ে কাজ করছি। এর মধ্যে যেসব বিষয়ে চুক্তি চূড়ান্ত করা সম্ভব হবে সেগুলো সই হবে। আমরা আশা করছি, ২০ থেকে ৩০টির মধ্যে যে কোনো সংখ্যক চুক্তি সই করতে পারব।’
সূত্র জানায়, এবারের সফরে রুশ সহায়তায় রূপপুরে যে পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র হচ্ছে তার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দুটি চুক্তি সই হবে। এর একটি হল- পরমাণু শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহার এবং অপরটি আণবিক শক্তি কমিশনের সঙ্গে ভারতের সংশ্লিষ্ট কমিশনের মধ্যে সহযোগিতা সংক্রান্ত আলাদা চুক্তি। চুক্তিগুলোর অধীনে বাংলাদেশী কর্মকর্তারা ভারতে প্রশিক্ষণ নেয়াসহ কারিগরি নানা সহায়তা পাবেন। রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণে রাশিয়ার যেসব সহায়তা পাওয়া যাবে, ভারতের সঙ্গে চুক্তির ফলে সহায়তা হবে তার অতিরিক্ত।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এবারের ভারত সফরকালেও তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তি সই হওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির আপত্তির কারণে তিস্তা চুক্তি সই হচ্ছে না। এ ছাড়াও গঙ্গা ব্যারাজ প্রকল্পে ভারতের সহায়তা নেয়ার বিষয়ে দু’দেশের মধ্যে আলোচনা চলছে। তবে এখনই এ ব্যাপারে কোনো চুক্তি হবে কি-না তা নিশ্চিত নয়।

  • স্বদেশ, বিপ্রতীক২৪.কম।
Print Friendly




test