কার্টুন - বিপ্রতীক২৪.কম।
রম্য গল্প সাহিত্য ও সংস্কৃতি

একটি পৌষমাস ও সর্বনাশের গল্প

Print Friendly

ছোট্ট একটি ছিমছাম পরিবারের গল্প। এক সকালে পরিবারের শেয়ারবাজারি কর্তা কাশেম সাহেব দৈনিক পত্রিকার শেয়ার বাজারের পাতায় চোখ বুলাইতেছিলেন। আজ তাহার দুই সুপুত্র বাবুল ও আবুলের পরীক্ষার ফল প্রকাশ হইবে। সেই হেতু বাড়ির গিন্নী গুলবদন বেগম পুত্রদ্বয় লইয়া স্কুলের উদ্দেশ্যে বাহির হইলেন। ঘন্টা দু’য়েক পর গুলবদন বেগম বিধ্বস্ত চেহারা লইয়া গৃহে প্রবেশ করিবামাত্রই কর্তার প্রশ্নবাণ –

কাশেম সাহেব : কি গো ! মুখ কালো কেন ? পুত্রদ্বয় কি এবারও পরীক্ষায় ফেল করিয়াছে নাকি ?

গুলবদন বেগম : ফেল করিলেও লজ্জা পাইতাম না। কিন্তু মাস্টার মশাই যে কথা বলিয়াছেন তাহাতে আমি আর কোথাও মুখ দেখাইতে পারিব না। লজ্জায় আমার মাথা কাটা যাইতেছে।

কাশেম সাহেব : কি হইয়াছে শুনি ?

গুলবদন বেগম : তোমার ১ম পুত্র বাবুল যথারীতি এইবারও ফেল করিয়াছে। আর স্বভাব চরিত্রের কথা কি বলিব। উচু নিচু সব ক্লাশের ছাত্রছাত্রী তাহার বন্ধু। আর সকলকে সে এমনভাবে পটায় যে সকলে নিজে টিফিন না খাইয়া তাহাকে খাওয়াইয়া দেয়।  আর তোমার সুপুত্র সকলের সহিত অনর্গল মিথ্যা কথা বলে।

কাশেম সাহেব : আর ছোট’টার কি খবর ?

গুলবদন বেগম : ছোট’টাতো রেকর্ড ভাঙিয়াছে। স্কুলের ইতিহাসের সবচাইতে কম নম্বর লইয়া সে ফেল করিয়াছে। আর স্কুলের এমন ছাত্র-ছাত্রী নেই, যে তাহার হাতে মার খায় নাই।

কাশেম সাহেব : হাঃ…হাঃ…হাঃ… ! এই কারনে তোমার এই অবস্থা ? আমি তো ভাবিলাম কি না কি হইয়াছে।

গুলবদন বেগম : লজ্জায় আমার মাথা হেট । আর তুমি কি না হাসিতেছ ?

কাশেম সাহেব : ছোট বেলা থেকেই যা অবস্থা দেখিতেছি, আমার দুইখানা পুত্রই তো এক একটা রত্ন ! আবুলের যে গতিবিধি তাহাতেই বলিয়া দেওয়া যায় যে, সে বড় হইলে নেতা হইবে।  আর ছোটজন বড় হইলে নামকরা ক্যাডার হইবে। তাহা হইলে বোঝ, একই পরিবারে একজন নেতা আর একজন ক্যাডার থাকিলে এখনকার জামানায় আর কি লাগে ! আমাদের ভবিষ্যৎ তো একেবারে উজ্জ্বল। এখন শুধু ওম্‌ শান্তি !

কর্তার কথা শেষ হইবামাত্র গুলবদন বেগমের দুনিয়া টলমলাইয়া উঠিল। তিনি টাসকি খাইয়া গেলেন। ডাক্তার পরীক্ষা করিয়া দেখিলেন, তাহার হার্টের ব্যামো। আসলে এমন পরিবারের একজন আম জনতা হিসেবে তাহার এমনটাই প্রাপ্য ছিল।


 

রম্যকার – রোকনুজ্জামান হিমেল ।                                                বিপ্রতীক মাসিক কার্টুন ট্যাবলয়েড এ প্রকাশিত ।

Powered by WP Review Powered by WP Review



test