ছবি - বিপ্রতীক২৪.কম।
আলোচিত সংবাদ খোলা জানালা সম্পাদকীয়

আমাদের শিক্ষাঙ্গন ও যৌনসন্ত্রাস

Print Friendly

ম্ভবত প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাই আসল জ্ঞানের পরিচায়ক নয়। একাবিংশের এই দ্বিতীয় দশকে দাঁড়িয়ে আমরা হয়তো সেটাই উপলব্দি করছি বারবার।  আমাদের নৈতিক স্খলন আজ চরম আকার ধারন করেছে। বিবেকবোধ শুন্যের কোটায় গিয়ে নেমেছে। সারা দেশে নারীর প্রতি সহিংতা তারই প্রমান দিচ্ছে। আর আমরা এতোটাই সভ্য হয়ে উঠেছি যে চোখের সামনে নারী নির্যাতন হচ্ছে দেখেও দেখছি না, কোন চিৎকার, আর্তনাদ শুনেও শুনছি না।  তার সাথে সন্ত্রাসের লাগামহীন ঘোড়া ছুটছে দেশময়।  কে রুখবে তাকে??


আজ একজন খুদিরাম এর বড়ই অভাব। কারন এই বিপননের যুগে খুদিরাম তার মাথা বিক্রি করে দিয়েছে চড়া দামে।  সে কিছুই চিন্তা করবে না বরং আরোপিত বুলি আওড়াবে তোতাপাখির মত। এখন এই বাস্তবতার মুখোমুখি আমরা দাঁড়িয়ে। জানিনা সক্রেটিস সবটুকু হেমলক পান করেছিলেন কিনা। নাকি কিছু অবশিষ্ট রেখে গেছেন মানব জাতির জন্য তা আজ জানতে বড় সাধ হয়।
আসলে কথা বলছি শিক্ষাঙ্গনে যৌনসন্ত্রাস নিয়ে। যা আজ ফ্যাশনে পরিনত হয়ে ওঠার উপক্রম। রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় থাকা এক শ্রেনীর ছাত্র নামধারী কুলাঙ্গার এই সন্ত্রাসের কারিগর । তবে এখানেই সীমাদদ্ধ নয়। এই অপকর্মের কারিগর এখন কতিপয় শিক্ষকও। পান্না মাস্টার, পরিমল মাস্টার কে হয়তো আমরা ভুলিনি,নাকি ভুলে গেছি কে জানে। কারন আমরা ভুলে যাওয়াকে জলবৎতরলং করে ফেলেছি।
অতি সম্প্রতি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে নাট্যকলা বিভাগে এমন একটি ঘটনার অভিযোগ এসেছে একই বিভাগের এক ছাত্রীর কাছ থেকে। অভিযুক্ত শিক্ষক উক্ত বিভাগের চেয়ারম্যান। ঘটনাটি দৈনিক প্রথমআলো, বিডিনিউজ২৪, এনটিভিবিডি, বাংলানিউজ২৪ সহ বেশ কিছু অনলাইন পত্রিকায় ছাপা হয়েছে। অভিযোগের বিষয়টি মিডিয়ায় আসার সাথে সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হয়েছে পক্ষে বিপক্ষে বিতর্ক।
একপক্ষের দাবি, উনি ষড়যন্ত্রের শিকার। সম্প্রতি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন ষড়যন্ত্র হতে দেখা গেছে। আবার অন্য পক্ষ বলছে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় ওই শিক্ষককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে । এছাড়া রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক থাকাকালীন এই অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে গনমাধ্যমে একই ধরনের অভিযোগ প্রকাশিত হয়েছিল। তাছাড়া ঘটনার পর থেকে তিনি মোবাইল ফোন বন্ধ রেখেছেন যা গনমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে এবং এতে সন্ধেহের মাত্রা ঘনিভুত হচ্ছে।
ঘটনা যাই হোক তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ না হওয়া পর্যন্ত এখন আমাদের শুধু অপেক্ষার পালা। দেখা যাক কি হয়। সমাজের একজন নাগরিক হিসাবে শুধু এই কামনা করি, শিক্ষাঙ্গন হোক সকল সন্ত্রাস মুক্ত, হোক পবিত্র, শিক্ষা হোক পবিত্র।

  • রুদ্র রাজন
    উন্নয়ন ও মানবাধিকার কর্মী ।
    খোলা জানালা, বিপ্রতীক২৪.কম ।
Powered by WP Review Powered by WP Review



test