ছবি : সংগৃহীত
top bar news আলোচিত সংবাদ ইতিহাস ও ঐতিহ্য সংবাদ শিরোনাম

আজো আছে বৃটিশ আমলে তৈরি কলোনী পাকশীর বাবুপাড়া

Print Friendly, PDF & Email

শত বছরের ঐতিহ্যবাহী সাজানো নগরী পাকশীর সাহেব পাড়া ও গ্রেইন সপ কলোনীটি ছিল শুধুমাত্র ইংরেজ সাহেবদের জন্য নির্ধারিত স্থান। এ সময় ইংরেজ সাহেবরা নেটিভদের ( সে সময় ইংরেজ সাহেবরা ভারতীয়দের নেটিভ বলে সম্বোধন করত) জন্য যে পাড়াটি গড়ে তোলে মূলত সেটিই ছিল বাবুপাড়া। পাকশীর রেলওয়ের কেরানি পদের কর্মচারীদের জন্য নির্দিষ্ট ছিল এ পাড়াটি।


কেরানি পাড়ার নাম বাবুপাড়া কেন হলো? বৃটিশ আমলে বেশিরভাগ কেরানি ছিল জাতিতে হিন্দু। তারা যে ধুতি পরতেন তার কাছাটি বানরের লেজের মত মনে হতো, আর বানরেরই আরেকটি প্রজাতির নাম হলো বেবুন মূলত এই বেবুন শব্দ থেকেই বাবু শব্দের উৎপত্তি হয়েছিল বলে সেই সময় জনশ্রুতি ছিল। যেহেতু কেরানিরা অর্থাৎ বাবুরা এই কলোনীতে বাসা করতো তাই এ কলোনীর নামকরন হয়েছিল বাবুপাড়া। বৃটিশের নিয়মানুসরে আজও রেলওয়ের কেরানিদের বাবু বলেই সম্বোধন করা হয়।


পাকশী বাবুপাড়া কলোনীটি ছিল পুরোপুরি পরিকল্পিত। নয়টি সারিতে বিন্যাস্ত ছিল পাড়াটি। বৃটিশ আমলে তৈরী পাকা বাসার সংখ্যা ছিল আটত্রিশটি। মোটা মুটি একই মডেলে তৈরি চুন সুড়কি গাথুনির বাসাগুলির প্রত্যেক সারির উত্তর দিকে রাস্তা ও তৎসংলগ্ন জল নিষ্কাশন ড্রেন ও ডাস্টবিন ছিল। রাস্তাগুলো ছিল ছাই বিছান। টিনশেড বাসাগুলো পরবর্তিকালে পাকিস্তান আমলে তৈরি করা হয়। কলোনীর বাসাগুলোতে পানি সরবরাহ করার জন্য তৈরি করা হয়েছিল পানির ট্যাংক। আজও এই পানির ট্যাংক থেকে পানি সরবরাহ করা হয় বাসাগুলোতে।


বৃটিশের তৈরি অনেক নিদর্শনি আজ বিলীন হয়ে গেছে এ কলোনী থেকে।

  • অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, ইতিহাস ও ঐতিহ্য ডেস্ক, বিপ্রতীক২৪.কম ।
test